নিহত আবদুস সামাদের স্ত্রী বেঁচে আছেন

0


ছবি : সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে বন্দুকধারীর হামলায় নিহত ড. আবদুস সামাদের স্ত্রী বেঁচে আছেন।তিনি নিউজিল্যান্ডে নিজ বাসাতেই অবস্থান করছেন।সামাদের ছেলে অকল্যান্ডে বাংলাদেশ দূতাবাসকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিউজিল্যান্ডের দূতাবাসের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমান ভুঁইয়া গণমাধ্যমকে জানান, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ড. আবদুস সামাদের স্ত্রী জীবিত আছেন এবং নিউজিল্যান্ডে তাদের বাড়িতেই অবস্থান করছেন। আবদুস সামাদের ছেলে তারেক দূতাবাসকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, নিহতের সংখ্যা নিয়ে কনফিউশন হলেও এটা ভালো দিক যে একজন জীবিত আছেন বলে জানা গেল।

এদিকে হামলায় নিহত ৪৯ জনের মধ্যে তিন বাংলাদেশি রয়েছেন বলে সে সংবাদ প্রচার হয়েছে সেটি সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন শফিকুর রহমান।তিনি বলেন, বাংলাদেশ দূতাবাস প্রথমে তিন কর্মকর্তার মৃত্যুর কথা জানলেও পরে নিশ্চিত হয় দুজন মারা গেছেন। তাই মৃতের সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছিল।

ওই হামলার পর আবদুস সামাদের স্ত্রী নিখোঁজ ছিলেন। তাই তাকে মৃত হিসেবেই বিবেচনা করা হয়েছিল। পরে তার পরিবার দূতাবাসকে জানায় যে, তার খোঁজ পাওয়া গেছে এবং তিনি সুস্থ আছেন।

নিহত ড. আবদুস সামাদ ক্রাইস্টচার্চের স্থানীয় লিঙ্কন বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক ছিলেন। এর আগে তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেছেন।

নিহত আরেকজনের নাম হোসনে আরা ফরিদ।তিনি একজন গৃহবধূ ছিলেন।

শফিকুর রহমান জানান, এ ঘটনায় গুরুতর আহত দুজন বাংলাদেশি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এদের মধ্যে একজন নারীর বুকে গুলি ঢুকে পিঠ দিয়ে বেরিয়ে গেছে। আরেকজনের পায়ে গুলি লেগেছে। তার পা কেটে ফেলতে হয়েছে।

নিউজিল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশিদের সব ধরণে সহায়তা বাংলাদেশ দূতাবাস করবে জানিয়ে শফিকুর রহমান বলেন, দূতাবাসের পক্ষ থকে যত ধরনের লজিস্টিক সাপোর্ট প্রয়োজন তারা দেবেন।

দূতাবাস বলছে, যে কোন তথ্য বা সাহায্যের জন্য ক্যানবেরায় বাংলাদেশ হাইকমিশনে যোগাযোগ করা যাবে।

জরুরী যোগাযোগের জন্য যে দুটো নম্বরে ফোন করা যাবে, সেগুলো হলো +৬১ ৪২৪ ৪৭২৫৪৪ এবং +৬১ ৪৫০১ ৭৩০৩৫।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে বন্দুকধারীদের এলোপাতারি গুলিতে ৪৯ জন মারা যান। আহত হয়েছেন অন্তত ৪৮জন। এই সন্ত্রাসী হামলার সময় আল নূর মসজিদে নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা। তারা মসজিদে ঢোকার কিছুক্ষণ আগে এক পথচারীর কাছ থেকে খবর পেয়ে ফিরে আসেন। ফলে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান ক্রিকেটাররা।এ ঘটনায় বাংলাদেশের তিনজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে।



LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here